হুজুর হুজুরনী পিক ফটো ছবি

হুজুর হুজুরনী পিক ফটো ছবি আমরা অনেকেই অনলাইনে খুঁজে থাকি। তাই আপনাদের জন্য আমাদের আজকের এই পোস্ট হুজুর হুজুরনী সুন্দর পিক দিয়ে সাজিয়েছি।


হুজুর হুজুরনী পিক ফটো ছবি

আমরা হুজুর এবং পর্দাশীল হুজুরনী ইসলামিক পিক আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের মডার্ন হুজুর পিক

আমি যখন হাফেজী মাদ্রাসায় ভর্তি হই, ওখানকার নিয়ম অনুযায়ী ভোর চারটায় পড়া দিতে হত। কিন্তু ছোটবেলায় আমার ছিল ইউরিনারি ইনকন্টিনেন্স এর সমস্যা । রাতে নাপাক হয়ে যাওয়ায় বাবা প্রতিদিন ভোর ৪টার আগে আমাকে বাসায় নিয়ে গোসল করিয়ে নিয়ে আসতেন। আমার হেফজ করার পুরো সময়টা বাবার যে সাহায্য পেয়েছিলাম সেটা ছাড়া আমার হাফেজ হওয়া প্রায় অসম্ভব ছিল।


হুজুর পিক

মডার্ন হুজুর পিক যার পথ চলা মোটেও সহজ ছিল না।

তথ্যসূত্র: ক্যাম্পাসটাইম

হুজুর হুজুরনী পিক

আপনাদের ভালো লাগলে আপনার পছন্দের মানুষের সাথে অবশ্যই শেয়ার করবেন।


হুজুর হুজুরনী পিক ফটো ছবি

হুজুর ছেলেটার বিয়ের বয়স হল এবং বিয়ে করলেন এক মেয়েকে।
♥ বাসর রাতে ঘরে প্রবেশ করেই স্ত্রীকে সালাম দিলেন।
♥ কথা হচ্ছে তাদের মধ্যে। স্বামী বলতেছেন, দেখ সোনা এখন থেকে তুমি আমার আর আমি তোমার। এভাবে অনেক্ষণ কথা বলার পর।
♥ এবার স্বামী বলতেছেন। আমার কিছু আদেশ তোমার মেনে চলতে হবেঃ-
♥ স্ত্রীঃ-হ্যা বলুন মেনে চলবো।
🌹 স্বামীর আদেশ
১→যখন আযান শুনতে পাবে সাথে সাথে নামায আদায় করে নিবে।
২→রাতে তাহাজ্জুদ শেষে কোরআন পড়বে।
৩→তোমাকে যাতে পরপুরুষ না দেখতে পারে।
৪→পায়ের নোখ থেকে হাতের নোখ পর্যন্ত সম্পূর্ণ পর্দা করবে।
৫→পর্দাবিহীন কোথাও যেতে পারবে না।
৬→রংঢং করে এবং অশ্লীল পোষাক পরিধান করতে পারবে না।
৭→আমার অনুমতি ছাড়া কিছুই করতে পারবে না।
♥ আরো অনেক কিছুই বললেন
♦ এভাবে স্ত্রী ঠিক ৬-মাস চলতে থাকে। আর নিজেকে বড়ই অসুখি/অস্বাধীন মনে করতে থাকে।
♦ পাশের বাড়ির এক ভাবি এসে কথা বলতে থাকে। কিরে…এতদিন ধরে তোদের বিবাহ হল, কিন্তু তুকে আজও দেখিনি।
♦ স্ত্রী স্বামীর আদেশ নামা বললেন। পাশের মহিলা বলতে থাকে। এ কেমন কথা…
♦ দেখ তো চেয়ে, আমরা স্বাধীন হয়ে চলছি, নিজের ইচ্ছায় পোষাক পড়ছি। নিজের ইচ্ছায় হাটে বাজারে যাচ্ছি, যেদিক মন চায় সেদিকেই যাচ্ছি, যেটা মনচায় সেটাই করছি।

পুরো গল্পটি পড়তে এখানে ক্লিক করুন


হুজুর হুজুরনী পিক

ইসলামিক পর্দাশীল মহিলার সুন্দর পিক।

হুজুর হুজুরনী পিক ফটো ছবি 1

সম্পূর্ণ গল্পটি পড়তে এখানে ক্লিক করুন

“আমার স্বামী একজন হুজুর মানুষ। কখনও ভাবি নি আমার হুজুর টাইপের কারো সঙ্গে বিয়ে হবে। আমার ইচ্ছা নাথাকা সত্ত্বেও পরিবারের চাপে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে হলো। আমি মর্ডান মেয়ে।


আর বিয়ে করবো কিনা একজন হুজুরকে?

ভাবতেই কেমন যেনো সংকোচ বোধ হচ্ছিলো। এমনিতেই বিয়ে করতে ইচ্ছা করছিলো না।

তাতে আবার এক বান্ধবি এসে বললো, কিরে রিয়া তুই হুজুরকে বিয়ে করলি? আর পাত্র খুঁজে পাস নি?

আরেক ভাবি এসে কানে ফিসফিস করে বললো, তোর বরের তো সারা মুখেই দাড়ি কিস করবি কোথায়?

এসব শুনে খুব বিরক্ত লাগছিলো। ইচ্ছা করছিলো এখনই আসন থেকে উঠে যাই। হঠাৎ পায়ের ঠক ঠক আওয়াজে ঘোমটার ফাঁক দিয়ে আঁড়চোখে দেখলাম একজন লোক আসছে।

তার বেশভুষা আর গঠন দেখে বুঝলাম উনি আমার স্বামী। অনিচ্ছা সত্ত্বেও উঠে গিয়ে পায়ে হাত দিয়ে সালাম করলাম।

আরো পড়তে পারেন: পোশাক পরিধানে ইসলামিক নিয়ম

হুজুর হুজুরনী পিক

রাতের রাস্তায় হুজুর হুজুরনী পিক ভালো লাগলে শেয়ার করবেন আপনার প্রিয় মানুষদের সাথে।

হুজুর হুজুরনী পিক ফটো ছবি

স্বামী-স্ত্রী একে অপরের পরিপূরক। আল্লাহ্ তায়ালা হজরত আদম (আ) কে সৃষ্টি করার পর তার নিঃসঙ্গতা দূর করা এবং মানব সৃষ্টির ক্রমধারা অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে হজরত হাওয়া (আ) কে সৃষ্টি করেছিলেন। স্বামী-স্ত্রী সম্পর্কে রাব্বুল আলামিন বলেন-

‘তারা তোমাদের পোশাক এবং তোমরা তাদের পোশাকস্বরূপ।’ (সূরা বাকারা: ১৮৭)

আমাদের ওয়েবসাইটে আপনার যেকোনো লেখা পাবলিশ করতে যোগাযোগ করুন। আপনি চাইলে আমাদের আপনার কাছে থাকা হুজুর হুজুরনী পিক আমাদের মেইল করে দিতে পারেন।

One comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *